ভোটের ফল কোন দিকে যাচ্ছে!

যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাষ্ট্রের বাইরে সারা বিশ্বের মানুষের সামনে এখন প্রশ্ন, ফল ঘোষণার এই প্রক্রিয়া কত দিন ধরে ঝুলে থাকবে। যদি আদালতের হস্তক্ষেপ ঘটে, তবে তা নির্ভর করবে আদালত কী বলেন। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প আদালতে যাওয়ার যে হুমকি দিয়েছেন, তাঁর উদ্দেশ্য হচ্ছে এখনই ভোট গণনা শেষ করা। কেননা, তাতে তাঁর বিজয় নিশ্চিত হয়, কিন্তু এখনো বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যে লাখ লাখ ভোট গণনা বাকি। কিন্তু এর বাইরে এই গণনা প্রক্রিয়ার একটা চূড়ান্ত দিনক্ষণ আছে। সময় মেনে ভোটের ফলাফল সত্যায়নে রাজ্য আইনসভার সংশ্লিষ্টতাও রয়েছে। এই তারিখ প্রতিটি অঙ্গরাজ্যে ভিন্ন। ফলে যদিও এখন ভোট গণনা নিয়ে বিভিন্ন ধরনের অনিশ্চয়তা আছে, এগুলো দু–তিন সপ্তাহের মধ্যেই অবসান হবে।

কিন্তু এখন পর্যন্ত যে ফল জানা গেছে, তা যুক্তরাষ্ট্রের রাজনীতি ও সমাজ বিষয়ে কিছু সুস্পষ্ট ইঙ্গিত দেয়। চার বছর ধরে ক্ষমতায় থাকার সময়ে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে বহুবিধ সমালোচনা এবং করোনাভাইরাস মোকাবিলায় তাঁর সমূহ ব্যর্থতা সত্ত্বেও তাঁর বিপুল জনপ্রিয়তা প্রমাণ করে যে যুক্তরাষ্ট্রের সমাজ এখন গভীরভাবে বিভক্ত। প্রাথমিকভাবে বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যের বিস্তারিত ফলাফলে দেখা যাচ্ছে, রিপাবলিকান পার্টির যেখানে সমর্থন ছিল, সেখানে তাদের সমর্থন আরও বেড়েছে, বিপরীতে ডেমোক্র্যাটদের নিজের এলাকায় তাদের সমর্থনও বেড়েছে উল্লেখযোগ্যভাবে। এটি সমাজের ভেতরে মেরুকরণের এক গভীর অসুখের কথাই তুলে ধরেছে।

তদুপরি আগামী ১৪ ডিসেম্বর ইলেকটোরাল কলেজের সদস্যরা সংশ্লিষ্ট অঙ্গরাজ্যের রাজধানীতে মিলিত হয়ে তাঁদের ভোট দেবেন। এত তারিখ বদলানোর কোনো উপায় নেই। প্রশ্ন হচ্ছে, এর আগেই আদালতের হস্তক্ষেপ ঘটবে কি না এবং যে ফলাফল ঘোষণা করা হবে, সেটি প্রার্থীরা এবং তাঁদের সমর্থকেরা মানবেন কি না। যদি এক পক্ষও মানতে রাজি না হয়, তবে যুক্তরাষ্ট্র যে একধরনের সাংবিধানিক সংকটে পড়বে, সে বিষয়ে সন্দেহ নেই।

তথ্যসুত্রঃ প্রথমআলো

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *